বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন
প্রকল্প প্রধান মহোদয়ের বানী

দেশের স্বাধীনতা পূর্বকালে পাটজাত পণ্য উৎপাদনের লক্ষ্যে ঢাকা শহর হতে মাত্র ৬ কিঃ মিঃ পূর্ব দিকে শীতলক্ষা নদীর পশ্চিম তীরে হাজী মোঃ আব্দুস সাত্তার’সহ সাতজনের অংশিদারীত্বে ৪৬.৩৪৬৪ একর জমির উপর ১৯৫৪ খ্রিঃ হতে ১৯৫৯ খ্রিঃ সময়ের মধ্যে ৪৫৮টি ন্যারো লুমের (হেসিয়ান ও স্যাকিং ক্লথের) ধারন ক্ষমতা সম্পন্ন “করিম জুট মিলস্ লিমিটেড” এর দু’টি ইউনিট (১নং ও ২নং) স্থাপন করা হয়। বিশ্ববাজারের চাহিদার প্রেক্ষিতে ১৯৬৪ খ্রিষ্টাব্দে ৬২টি ব্রড লুমের (সিবিসি) ৩য় ইউনিট স্থাপনের মাধ্যমে মিলের প্রথম সম্প্রসারণ কার্য সম্পন্ন করা হয়। সর্বশেষ ২০১৭ সালে সংযোজন করা হয়েছে ২৪টি আধুনিক তাঁত মেশিন “র‌্যাপিয়ার লুম”। বর্তমানে মিলটিতে মোট তাঁতের সংখ্যা ৫৪৪টি। স্বাধীনতাত্তোর দেশ ও জাতির স্বার্থে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর নির্দেশে শিল্পকারখানা জাতীয় করণের আওতায় প্রেসিডেন্সিয়াল অর্ডার ২৭, তারিখ ২৬-০৩-১৯৭২ অনুযায়ী “করিম জুট মিলস্ লিমিটেড” কে রাষ্ট্রীয়করণ করা হয়। তারপর থেকে “বাংলাদেশ জুট মিলস করপোরেশন (বিজেএমসি)”-এর নিয়ন্ত্রণে “করিম জুট মিলস্ লিমিটেড” পরিচালিত হয়ে আসছে। পরবর্তিতে ২০১৭ সালে অত্র মিলে স্থাপিত আধুনিক প্রযুক্তির ২৪টি র‌্যাপিয়ার লুমে উৎকৃষ্টমানের কাপড় যেমন- এফজেএফ, ইউনিয়ন ফেব্রিক্স ইত্যাদি উৎপাদিত হচ্ছে। র‌্যাপিয়ার লুমে উৎপাদিত উৎকৃষ্টমানের কাপড়ের তৈরী ব্যাগ সরকারের বিভিন্ন জাতীয় কার্যক্রমে ব্যবহৃত হওয়ার পাশাপাশি উৎপাদিত কাপড় জেডিপিসির সদস্যভুক্ত বেসরকারী উদ্যোক্তাগণ ব্যবহার করছেন। ফলে দেশে ডাইভারসিফাইড পাটপণ্য প্রস্তুতে করিম জুট মিল অনন্য ভূমিকা পালন করছে। তাছাড়া পাটের উন্নত ফেল্ট তৈরীর একটি কারখানা এ মিলে প্রতিষ্ঠার বিষয়টি বাস্তবায়নাধীন আছে। এ মিলের বিশাল মাঠে বিজেএমসির ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলা প্রথম থেকেই অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। অত্র মিলের উৎপাদিত পন্যের প্রায় ৯০ ভাগ বিদেশে রপ্তানি করা হয়।ফলে দেশের জন্য বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে অত্র মিল গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। অত্র মিলে বর্তমানে প্রায় ৩ হাজার শ্রমিক/কর্মচারী/কর্মকর্তা কর্মরত আছে। ফলে বেকারত্ব হ্রাসে জাতীয় পর্যায়ে অত্র মিল অসামান্য অবদান রাখছে। সর্বোপরি ঢাকা জেলার ডেমরা থানাধীন সারুলিয়ার উপকন্ঠে শীতলক্ষা নদীর পশ্চিম তীরের বিস্তৃত এলাকা নিয়ে অবস্থিত এ মিল পরিবেশ দুষণ রোধ/হ্রাসে সহায়ক ভূমিকা রাখার পাশাপাশি এক বিশাল কর্মযজ্ঞ সৃষ্টির মাধ্যমে অত্র এলাকার সামগ্রীক অর্থনীতি তথা জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখছে।

মোঃ রফিকুল ইসলাম
উপ-মহাব্যবস্থাপক (প্রকল্প প্রধান)

বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন